Sale!
,

ট্রেডমার্ক সার্চ – Trademark Search

4,999.00৳ 

ট্রেডমার্ক সার্চ – Trademark Search in Bangladesh

Trademark Search অথবা ট্রেডমার্ক সার্চ

Trademark Search করবেন আবেদনকারী তার মার্কটি পূর্বে কেউ আবেদন করেছে কিনা অথবা কারো আবেদনকৃত মার্কের সাথে মিলে কিনা আবেদনের পূর্বেই তা যাচাই করার জন্য। DPDT-এর বরাবর অনুরূপ ট্রেডমার্কের জন্য ট্রেডমার্ক সার্চ বা Trademark Search করতে পারে। তবে ট্রেডমার্কের নিবন্ধনের জন্য এটি বাধ্যতামূলক নয়।

Trademark Search
Trademark Search

ট্রেডমার্ক নিবন্ধন এর ধাপ মোট ০৪ টি, যথাঃ

ধাপ-১: ট্রেডমার্ক আবেদন (Trademark Application)

একটি ট্রেডমার্ক নিবন্ধনের জন্য একটি আবেদনে নিম্নলিখিত বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করতে হবে-

  • ট্রেডমার্ক রেজিস্ট্রেশনের আবেদন
  • মার্ক /লোগো/ডিভাইস প্রিন্ট বা উপস্থাপনার নাম (লোগো ৩ ইঞ্চি*৩ ইঞ্চি সাইজের সফট কপি)
  • আবেদনকারীর নাম
  • আবেদনকারীর ঠিকানা এবং জাতীয়তা
  • আবেদনকারীর অবস্থা যেমন মার্চেন্ডাইজার / ম্যানুফ্যাকচারার / সার্ভিস প্রোভাইডার
  • পণ্য/পরিষেবা এবং শ্রেণির স্পেসিফিকেশন।
  • চিহ্নের ব্যবহারকারীর তারিখ (চিহ্নটি ব্যবহার করা হচ্ছে বা বাংলাদেশে ব্যবহারের প্রস্তাব করা হয়েছে কিনা)
  • সাধারণ/নির্দিষ্ট পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি প্রয়োজন হতে পারে

লাইসেন্স সেবা থেকে আপনি অফিসে বসে সম্পূর্ণ অনলাইনে ট্রেডমার্ক  সার্চ সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন। অনলাইনে পেমেন্ট করে অর্ডার কমপ্লিট করুন এবং প্রয়োজনীয় সকল ডকুমেন্টস, তথ্য ও লোগো ইমেইলে অথবা আমাদের হোয়াটসএপ নাম্বারে পাঠিয়ে দিবেন। ২০ কার্যদিবসের মধ্যে অনলাইন  Trademark Search Report কপি বুঝে নিন।

ধাপ-২: আবেদন যাচাইকরণ (Trademark Examination)
এই ধাপটি শুরু হয় আবেদন তথা ১ম দাপ থেকে ৬-১৮ মাস পরে। এই ধাপে ট্রেডমার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আমাদের দেশে প্রচলিত ট্রেডমার্ক আইন, ২০০৯ এর ধারা ৬,৮ ও ১০ অনুসারে আবেদনটি যাচাই করা হয়। যদি আপনার আগে কেউ একই বা দেখতে একই ট্রেডমার্কের জন্য আবেদন করে থাকে বা অন্য কারোর নামে নিবন্ধন থাকে তাহলে আপনার মার্কটি নিবন্ধন হবে না। আবার যদি এমন হয় আপনার মার্কটি প্রচলিত সুপরিচিত টেড্রমার্কের নকল তাহলেও আপনার মার্ক নিবন্ধন হবে না। এই ক্ষেত্রে ট্রেডমার্ক অফিস আপনাকে ২ মাসের মধ্যে জবাব দাখিলের সময় দিয়ে নিজের মার্কের মালিকানা সংক্রান্ত প্রমানাদি দাখিলের জন্য নোটিশ দিবে। ব্যর্থ হলে আপনার আবেদন পরিত্যাক্ত বলে গণ্য হবে। আর যদি কোন প্রকার নোটিশ ইস্যু না হয় তাহলে এই ধাপে ১ টাকাও খরচ নেই। নোটিশ ইস্যু না হলে আপনার মার্কটি পরবর্তী দাপে তথা গেজেটে প্রকাশের অনুমতি লাভ করবে।

ধাপ-৩: জার্নাল বা গেজেট বিজ্ঞপ্তি (Journal Publication)
ট্রেডমার্ক অফিস যদি কোন নোটিশ ইস্যু না করে অথবা যদি ইস্যু করে এবং আপনি উক্ত নোটিশের বিষয়ে যথাযথ তথ্য ও প্রমাণ দাখিল করতে পেরেছেন এবং এসব তথ্য ও প্রমাণের বিষয়ে ট্রেডমার্ক অফিস সন্তুষ্ট হলে আপনার মার্কটি গেজটে প্রকাশের অনুমতি পত্র লাভ করবে এবং গেজেট বা জার্নাল ফি জমা দিলে ০৫ থেকে ০৬ মাসের গেজেটে আপনার মার্কটি প্রকাশিত হবে। আবেদনকারীর মার্কটি জার্নালে প্রকাশ করার অর্থ হচ্ছে যদি দেশ-বিদেশের কোন ব্যক্তি বর্ণিত মার্কের বিষয়ে ক্ষুব্ধ বা সাংঘর্ষিক মনে করেন তাহলে আপত্তিকারী যেন আবেদনকারীর মার্কটির নিবন্ধনের বিরোধিতার সুযোগ পায়। আবেদনকারীর মার্কটি ট্রেডমার্ক জার্নালে প্রকাশে ০২ মাসের সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি (বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে) নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে বিরোধিতার আবেদন (অপোজিশন কেস) দাখিল করতে পারবেন। মামলার ফলাফল নিবন্ধন আবেদনকারীর বিপক্ষে গেলে নিবন্ধনের আবেদনটি প্রত্যাখ্যান করা হবে এবং ফলাফল নিবন্ধন আবেদনকারীর পক্ষে হলে নিবন্ধন প্রদানের লক্ষ্যে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

ধাপ-৪: নিবন্ধন (Trademark Registration Certificate)
জার্নাল প্রকাশের পর যদি কোন বিরোধিতার আবেদন না হয় অথবা বিরোধিতার মামলাটির ফলাফল নিবন্ধনের পক্ষে হয় তাহলে বর্ণিত মার্কটি ট্রেডমার্ক রেজিস্ট্রি-ভুক্ত হবে এবং আবেদনকারী এইমর্মে একটি রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট লাভ করবেন। রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ আবেদনের তারিখ হতে ৭ বছর এবং পরবর্তী প্রতি ১০ বছর অন্তর অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত (এমনকি উত্তরাধিকার সূত্রে) উহা নবায়ন করা যাইবে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ট্রেডমার্ক সার্চ – Trademark Search”

You may also like…

× WhatsApp Chat